খেলাধুলা

‘ম্যাশকে তো আর ছুড়ে ফেলে দেয়া যায় না’

মাশরাফীকে দলে রাখার সিদ্ধান্ত নির্বাচকদের। আর অবসরের সিদ্ধান্ত একান্তই মাশরাফীর। তবে ম্যাশের বিকল্প তৈরিটাও জরুরি মনে করেন সাবেক টাইগার অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট।বয়সটা ৩৬ হলেও, ১৮’র তারুণ্য তার বুকে, মগজে ৭২’র প্রবীণের মতোই প্রজ্ঞা। বন্দনায় শব্দগুলো ঘুরে ঘুরে আসে। তাই কথা বাড়ানো বাহুল্য। ক্রিকেটের ২২ গজে তো বটেই, মাঠের বাইরেও আপাদমস্তক একজন অধিনায়ক। তিনি মাশরাফী বিন মোর্ত্তজা।টাইগার ক্রিকেটে এখনও দেয়ার সামর্থ্য আছে। তবে বিকল্প গড়ে না তুললে যে শূন্যস্থানটা ভোগাবে ভবিষ্যতে! উইন্ডিজ সিরিজে নড়াইল এক্সপ্রেসকে দেখা যাবে কিনা সেই প্রশ্নের উঁকিঝুঁকি সবার মনেই।
সাবেক ক্রিকেটার নিয়ামুর রশীদ বলেন, ক্যাপ্টেন যদি মনে করে দলে এখনও তার দেয়ার অনেক কিছু আছে, তাহলে তার চেয়ে ভালো কিছুই হতে পারে না। দেশের ক্রিকেটে মাশরাফীর এত অবদান, তাকে তো ছুড়ে ফেলা যায় না। তার প্রাপ্য সম্মানটা তাকে দেয়া উচিত, প্রত্যেক ক্রিকেটারকে প্রাপ্য সম্মান দেয়া উচিত।সাবেক অধিনায়ক খালেদ মাসুদ পাইলট বলেন, মাশরাফী-সাকিবরা কিন্তু সারাজীবন থাকবে না। বিকল্প তৈরি করতে হবে। একজন মাশরাফী রাতারাতি বানাতে পারবেন না। বাশার ভাই, নান্নু ভাই আছেন নির্বাচক হিসেবে। তারা নিশ্চয়ই কিছু পরিকল্পনা করে রেখেছেন।
আপনার মন্তব্য লিখুন

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *

Back to top button
%d bloggers like this: